অসমের বাঙালিদের পাশে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী, আশ্বাস প্রতিনিধি দলের

0
102

তিনসুকিয়ার নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিনিধি দল। বাংলার মানুষ ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় তাঁদের পাশে আছেন বলেও আশ্বস্ত করেন। রবিবার সকালেই ডেরেক ও’ব্রায়েনের নেতৃত্ব প্রতিনিধি ডিব্রুগড় পৌঁছান। প্রতিনিধি দলে ডেরেক ছাড়াও রয়েছেন নাদিমুল হক, মমতা ঠাকুর ও মহুয়া মৈত্র। ডিব্রুগড় বিমান বন্দরে পুলিশের সঙ্গে কথা বলেই গাড়িতে তিনসুকিয়ার উদ্দেশে সড়কপথে রওনা দেন তাঁরা। সেখানে নিহতদের পরিজনদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন। পরিবার পিছু ১ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্যও করা হয়। পাশাপাশি বিধায়ক মহুয়া মিত্র বলেন, অসমের বাঙালিদের ভয় পাওয়ার কারণ নেই। তাঁদের পাশে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন। এদিকে, ঘটনার দু’দিন পেরিয়ে গেলেও রবিবারেও এলাক ছিল থমথমে। তবে, গণহত্যার প্রতিবাদে বাঙালি ছাড়াও এগিয়ে এসেছেন অন্য ভাষার মানুষও। আলফা জঙ্গির বিরুদ্ধে এমন স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিবাদ রীতিমতো বিরল ঘটনা। এদিকে এনআইএকে গণহত্যার তদন্তভার তদন্তভার নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারও। অন্যদিকে, এদিনও জারি ছিল চলছে সেনা এবং পুলিশের টহল। চলছে ব্যাপক ধরপাকড় শুরু । এখনও পর্যন্ত তিন জনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে ‘অল বিটিসি বেঙ্গলি ইউথ স্টুডেন্টস ফেডারেশনে’র সভাপতি সুজিত সরকারকে গ্রেফতারের ঘটনায় নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে অসমে বিভিন্ন এলকায়। তাঁর বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক মন্তব্যের অভিযোগ করেন আলোচনাপন্থী আলফা নেতা প্রবাল নিয়োগী। কোকরাঝাড় থানার সুজিত বাবু আত্মসমর্পণ করতে গেলে তাকে গ্রেফতার করা হয়।