নকশালবাড়িতে ভূমিপুত্রকে ভোট দেওয়ার আর্জি মমতার

0
106

ভূমিপুত্রকে ভোট দেওয়ার আর্জি নিয়ে শুক্রবার নকশালবাড়িতে নির্বাচনী জনসভায় করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দার্জিলিং-এ তৃণমূলের প্রার্থী একসময়ের মোর্চা নেতা বর্তমানে তৃণমূলে যোগ দেওয়া অমর সিং রাই। দার্জিলিঙে বিভিন্ন জনজাতির বাস। সেই কথা উল্লেখ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিজেপি সরকার মানুষের মধ্যে বিভেদ ঘটাতে চাইছে। তাঁর অভিযোগ, ভোট দিলে গোর্খাল্যান্ড বানিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাংলাকে ভাগ করতে চাইছে বিজেপি। পাহাড়-সমতল একসঙ্গে কাজ করতে চায় বলে জানান মমতা। নোটবাতিলের টাকা লুঠ করে এখন নির্বাচনের সময় বিজেপি টাকা দিতে এসেছে বলেও অভিযোগ করেন তৃণমূল নেত্রী। ক্ষমতায় এলে তারা ব্যাঙ্কের রাখা টাকাটাও লুঠ করে নেবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রতিশ্রুতি মতো, ১৫ লক্ষ টাকা দেননি মোদি। এমনকী, দেশবাসীকে কাজও দেননি বলে তোপ দাগেন মমতা। তাঁর মতে, রাজ্যের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি, ‘জগাই মাধাই গদাই’। ওদের ভোট দিয়ে ভোট ভাগ না করার আর্জি জানান তৃণমূল নেত্রী। রাজ্যে সরকার পাহাড়কে শান্ত করে, আর দিল্লি থেকে আগুন লাগায়। রাজ্যের উন্নয়নমূলক কাজের খতিয়ান তুলে ধরে, আয়ুষ্মান প্রকল্পকে কটাক্ষ করেন মুখ্যমন্ত্রী। এর আগে দার্জিলিং কেন্দ্র থেকে গোর্খাল্যান্ডের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দুবার সাংসদ হয়েছেন দুই বিজেপি নেতা যশবন্ত সিং ও সুন্দরসিং আলুওয়ালিয়া। আগেরবার এই আসন থেকে জিতে সাংসদ, পরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হয়েছিলেন বিজেপির সুন্দরসিং আলুওয়ালিয়া। কিন্তু তারপর প্রতিশ্রুতি পূরণ তো দূরস্ত, লোকসভা কেন্দ্রে তাঁকে দেখাও যেত না। তিনিই একমাত্র সাংসদ, ব্যাঙ্গ করে যাঁরা নামে মিসিং ডায়েরি করেছিলেন স্থানীয়রা। এবার অবশ্য এই কেন্দ্রে তাঁকে আর প্রার্থী করেনি গেরুয়া শিবির। আগের বিজেপি প্রার্থীদের সমর্থন করেছিল সেই সময়কার গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। তবে, এবার তারা বিভক্ত। একদল গুরুংপন্থী আরেক গোষ্ঠী তামাং-এর সঙ্গে। বিমল গুরং সমর্থকরা রয়েছে বিজেপি পক্ষেই। তবে, তৃণমূল প্রার্থী ভূমিপুত্র অমর সিং রাইয়ের দিকেই সমর্থন রয়েছে বিনয় তামাং ও তাঁর সহযোগীদের। এই পরিস্থিতিতে দলীয় প্রার্থীর হয়ে স্বয়ং তৃণমূল নেত্রীর সভা দলীয় প্রার্থীর পালে হাওয়া লাগাবে বলেই আশা ঘাসফুল শিবিরের।