মহা-নাটক মহারাষ্ট্রে, মুখ্যমন্ত্রী ফড়নবিশ, উপ এনসিপির একাংশের অজিত পাওয়ার

0
851

দিনের ছবিটা পুরোপুরি পাল্টে গেল রাতে। শুক্রবার শিবসেনা, কংগ্রেস, এনসিপি মিলে ঠিক করেছিল পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হবেন শিবসেনার উদ্ধব ঠাকরে। জোটের নাম থেকে ন্যূনতম সাধারণ কর্মসূচি সবই তৈরি। সেইমতো রাজ্যপালকে সরকার গড়ার দাবি জানাতে তাদের শনিবারই রাজভবনে যাওয়ার কথা ছিল। আর শনিবার সকাল আটটায় রাজভবনে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দ্বিতীয়বার শপথ নিলেন বিজেপির দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। তাঁর সঙ্গে উপমুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ারের ভাইপো দলছুট অজিত পাওয়ার। আর ভোর পৌনে ছটায় রাজ্য থেকে রাষ্ট্রপতির শাসনও তুলে নেওয়া হল। শুক্রবারই পাওয়ার নিজে জানিয়েছিলেন, মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন উদ্ধব ঠাকরে। কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আমূল বদলে গেল রাজনীতির সমীকরণ। প্রথম জল্পনাটা ছিল এনসিপিকে মোদির ঢালাও প্রশংসার পর দিল্লিতে তাঁর সঙ্গে শরদ পাওয়ারের একান্ত বৈঠক নিয়ে। কৃষক সমস্যা নিয়ে আলোচনার কথা বলা হলেও তা যে ছিল নিছক রাজনীতির বৈঠক, এমনই শোনা যাচ্ছিল রাজনৈতিক মহলে। দ্বিতীয়, দিল্লিতে রাজ্যপালদের বৈঠকে না গিয়ে রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারির মুম্বই থেকে যাওয়াও জল্পনা বাড়িয়েছিল। তবে এমনটা যে হবে তা বুঝতে পারেননি কেউই। আপ্লুত ফড়নবিশ বলেছেন, শিবসেনা মানুষের রায় মানেনি। রাজ্যে শক্ত ও স্থায়ী সরকার প্রয়োজন। তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মোদি, অমিত শাহ। কংগ্রেসের অভিষেক মনু সিংভি বলেছেন, তিন দলের বোঝাপড়ায় বেশি সময় লেগেছে। তাই সুযোগ হাতছাড়া হল।