ঈদেই স্ত্রীকে মেরে পুকুরে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা স্বামীর

0
1394

পবিত্র ঈদের দিনেই শোকের ছায়া নেমে এল উত্তর চব্বিশ পরগনার বেলঘরিয়া থানার কামারহাটি ধোবিয়াবাগান এলাকায়। পারিবারিক অশান্তির জেরে নিজের ২ বছরের ছেলের সামনেই বউয়ের গলা কেটে নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন এক যুবক। ওই শিশুর চিৎকার শুনে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। দরজা ভেঙে রক্তাক্ত অবস্থায় শেখ সাজিদ হোসেন ও রেহেনা পারভিন খাতুনকে সাগর দত্ত মেজিকেল কলেজে নিয়ে যায় তাঁরা। কিন্তু পথেই হাতের শিরা কাটা অবস্থায় টোটো থেকে লাফিয়ে পড়ে রাস্তার পাশে একটি পুকুরে ঝাঁপ মারেন শেখ সাজিদ। অন্যদিকে, রেহেনাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে পুকুরে তলিয়ে যাওয়া রেহেনার স্বামী সাজাদকে খুঁজতে ডুবুরি নামায় বেলঘরিয়া থানার পুলিশ। বেশি রাতের দিকে তাঁর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পেশায় বাস চালক সাজিদের সঙ্গে তিন বছর আগে বিয়ে হয়েছিলো কাশীপুরের বাসিন্দা রেহেনার। তাদের দুবছরের একটি সন্তান ও রয়েছে। পবিত্র উৎসবের দিন জোড়া মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।