লালকেল্লা দত্তক নিল ডালমিয়া ভারত গ্রুপ

0
81

অভিনব উদ্যোগ। দিল্লির ঐতিহাসিক লালকেল্লা দত্তক নিল ডালমিয়া ভারত গ্রুপ। কোনও কর্পোরেট সংস্থার প্রাচীন স্থাপত্যকে দত্তক নেওয়ার নজির এই প্রথম। পাঁচ বছরের জন্য ১৭ শতকের স্থাপত্যটির রক্ষণাবেক্ষণ ও দায়ভার গ্রহন করেছে সংস্থাটি। বিনিময়ে সরকারকে ২৫ কোটি টাকা দেবে সংস্থাটি। ইন্ডিগো এয়ারলাইনস ও জিএমআর গ্রুপকে হারিয়ে এই চুক্তি জিতে নেয় ডালমিয়া ভারত গ্রুপ। প্রসঙ্গত, গতবছর প্রাচীন সৌধগুলিকে দত্তক নেওয়ার প্রথা চালু করেছিলেন রাষ্ট্রপতি। সেখানে তাজমহল, হিমাচল প্রদেশের কাংড়া ফোর্ট, অরুণাচল প্রদেশের তিমবাং, কোনারকের সূর্য মন্দিরের মতো দেশের ১০০ ঐতিহাসিক স্মারক দেখভালের জন্য কর্পোরেট সংস্থাকে দায়িত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়। সেই প্রথায় সাড়া দিয়ে পঞ্চম মোগল সম্রাট শাহজাহান নির্মিত ঐতিহাসিক দূর্গটির ভার নেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে দেশের কয়েকটি কর্পোরেট সংস্থা। গত ২৪ এপ্রিল ডালমিয়া ভারত গ্রুপ ও ভারত সরকারের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে পাঁচ বছরের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী প্রথম ছয় মাসের মধ্যেই দর্শনার্থীদের জন্য জলের কিয়স্ক থেকে শুরু করে রাস্তার ধারে বসার বেঞ্চ, আধুনিক ক্যাফেটরিয়া, দোকান, প্রসাধনাগার প্রভৃতির ব্যবস্থা করা হবে। ধীরে ধীরে আলোকসজ্জ্বা, ভ্রমণের জন্য ব্যাটারি চালিত গাড়ি, দর্শনার্থীদের বিভিন্ন সুবিধাযুক্ত ১০০০ বর্গফুটের ঘরের ব্যবস্থাও করা হবে। যদিও বিজেপি সরকারের এহেন উদ্যোগের কঠোর সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। ‘আর কোন কোন স্থাপত্যকে তুলে দেওয়া হবে বেসরকারি সংস্থার হাতে?’ টুইটারে এমন প্রশ্নও করা হয় সরকারের উদ্দেশে। সমালোচনা করেছেন ঐতিহাসিক উইলিয়াম ডেরিলাম্পটনও। তিনিও টুইট বার্তায় জানান, কোনও কর্পোরেটা সংস্থা নয়, এই ধরনের গুরুত্বপূর্ণ সৌধগুলির রক্ষণাবেক্ষণের ভার সরকারের হাতেই থাকা উচিত। (ছবিঃ হেমন্তকুমার পাণ্ডে)