গরমে বাচ্চাদের বাঁচাতে

0
63

গরমের সময় বড়দের থেকে বেশি কষ্ট শিশুদের। অনেক সময় তারা তাদের অসুবিধার কথা বলতেও পারে না। এসময় বাড়তি কিছু বিষয় খেয়াল রাখাটা জরুরি। তাই দেখে নিন এরকম কয়েকটি বিষয়।
বারবার জল খাওয়ান। ডাবের জল, ফলের রস খাওয়ান। শরীরের তাপমাত্রা বাড়লে গা মুছে দিন। শিশুকে এ সময় অবশ্যই সুতির নরম ও পাতলা পোশাক পরান। সঠিক সানস্ক্রিন ব্যবহারে আপনার শিশুর কোমল ত্বক রক্ষা পাবে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে। গরমের সময় মশা, মাছি, পিঁপড়ে অথবা বিভিন্ন পোকামাকড়ের প্রকোপ দেখা যায়, যা আপনার শিশুর অসুস্থতার কারণ হতে পারে। আপনার ঘরকে এগুলো থেকে মুক্ত রাখতে অ্যারোসল বা অন্য কীটনাশক ব্যবহার করতে পারেন। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার শিশু যেন কোনওভাবেই এগুলোর নাগাল না পায়। এছাড়া ঘরকে পোকামাকড়মুক্ত রাখতে ঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন। ফুলের টবে বা অন্য কোথাও এমনকি বালতিতেও জল জমতে দেবেন না। শিশুকে সরাসরি ফ্যান কিংবা এসির কাছে শোয়াবেন না। প্রয়োজনে ঘরের জানালা খুলে দিন। কোনওভাবেই যেন ঘাম শরীরে না শুকোয়, এতে ঠান্ডা লেগে যেতে পারে। এজন্য বারবার ঘাম মুছে দিন। শিশুর ত্বকে যেন ঘামাচি না ওঠে এজন্য স্নানের পর এবং ঘুমোতে যাওয়ার আগে ঘামাচি পাউডার লাগিয়ে দিন। আপনার শিশুর পোশাকের দিকে লক্ষ্য রাখুন। ঘেমে ভিজে গেলে বা নোংরা হয়ে গেলে তা বদলে দিন।