স্কুলের মাঠ দখল করে বিয়েবাড়ি, আটকে গেল বার্ষিক স্পোর্টস

0
331

বৃহস্পতিবারই ছিল স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। কিন্তু তার আগেই স্কুলের মাঠ দখল করে চলছে বিয়েবাড়ির আসর। মাঠে ঢোকার গেটে ঝুলছে তালা, ফলে খুদে পড়ুয়া ও অভিভাবকরা এসে পড়েছেন বিপাকে। ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় নামার আগে বুধবারই অনুশীলন করার কথা ছিল পড়ুয়াদের। কিন্তু সেখানে চলছে ম্যারাপ বাঁধার কাজ। তবে শুধু মাঠই নয়, স্কুলের প্রার্থনা হলেও তালা ঝুলছে। ফলে সকাল থেকে হয়নি কোনও প্রার্থনা। ঘটনা খাস কলকাতাতেই, গার্ডেনরিচের নিমকমহল রোডের আর্য পরিষদ বালিকা বিদ্যাপীঠে। বুধবার সকালে স্কুলে এসে ক্ষোভে ফেটে পড়েন অভিভাবকরা। তাঁদের দাবি, শুধু বিয়েব অনুষ্ঠান নয়, বিভিন্ন কাজেই স্কুলের মাঠ ভাড়া দিয়ে দেওয়া হয়। এই স্কুলে পড়াশোনা করে প্রায় ১১০০ ছাত্রী।

বেশিরভাগ ছাত্রীর দাবি, বিয়ের মরশুমে প্রায় ৮-১০ দিন এই স্কুলের মাঠ সহ বিভিন্ন অংশ ভাড়া দেওয়া হয়। কিন্তু এবার বিয়ের জন্য ক্রীড়া প্রতিযোগিতাই বন্ধ। যদিও স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা কৃষ্ণা কাণ্ডার দাবি, এবারের বিয়ের অনুষ্ঠানের কথা জানা নেই তাঁর। স্পোর্টসের জন্যই প্যান্ডেল বাঁধার কথা বলেছিলাম। সব আয়োজনও করা হয়ে গিয়েছিল। তবে অনুমতি দিলেন কে? প্রধান শিক্ষিকার দাবি, এলাকার কাউন্সিলর রামপিয়ারী রাম মাঝেমধ্যেই স্কুলের ভবন ভাড়া দেন। সেখানে বিয়ের আসর বসে। অনুষ্ঠান শেষে স্কুল অপরিচ্ছন্ন রেখে চলে যায় সকলে। অনুষ্ঠানের পর স্কুলের গেট খোলার জন্য বারবার অনুরোধ করতে হয় রামপিয়ারী রামকে। অপরদিকে কাউন্সিলরের দাবি, তাঁর উদ্যোগেই এই স্কুলের অনুমোদন পাওয়া গিয়েছে। তিনি একসময়ে ওই স্কুলে ছাত্র ছিলেন। পরে সেটি বালিকা বিদ্যালয় হয়েছে। অনেক আগে থেকেই স্কুলে এই ধরনের অনুষ্ঠান হতো। তবে এই স্কুলের কোনও অংশ ভাড়া দেওয়া হয় না। এলাকার মানুষের প্রয়োজনে তা ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু এবার স্কুলের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার কী হবে? উত্তর জানেন না কোনও পক্ষই।