যৌনতার উৎসব

0
253

প্যারিসে হয়ে গেল যৌনকর্মীদের উৎসব। এই প্রথম। তথ্যচিত্র, ফটোগ্রাফি, যৌনকাজের জন্য তাঁবু, সবই ছিল তাতে। উদ্দেশ্য, যৌনকর্মীদের অধিকারের প্রচার এবং পতিতাবৃত্তি সংক্রান্ত একটি আইনের সমালোচনা। প্যারিস উৎসব চেয়েছে, যৌনকর্মীদের রাজনৈতিক ভূমিকা আরও বেশি দৃশ্যমান হোক। প্রদর্শনীর নাম ছিল পতিতা এবং নারীবাদীরা, যৌনকর্মও একটা কাজ। তথ্যচিত্র পরিচালক মেরিয়ান শারগোই জানিয়েছেন, শিল্পী হিসেবে, যৌনকর্মী হিসেবে তাঁরা নিজেদের কথা তুলে ধরতে চান। তাঁদের ভালো করার জন্য তাঁদের হয়ে বিশেষজ্ঞরা আইন বানাচ্ছেন।

২০১৬ সালের এপ্রিলের একটি আইন পতিতাদের খদ্দেরদের জন্য জরিমানা বাড়িয়ে দেড়হাজার ইউরো করেছে। দ্বিতীয়বার ধরা পড়লে তা হবে দ্বিগুণেরও বেশি। যৌনকর্মীদের মুখপাত্র থিয়েরি স্যাফুসোঁ বলেচেন, এর ফলে যৌনকর্মীদের আয় কমেছে, বেড়েছে তাদের ওপর অত্যাচার। আগস্টে এক হিজড়ে ভানেসা কাম্পোসকে খুন করা হয়েছে প্যারিসের বো দে বোলোনে।

ওই আইনের ফলে যৌনকর্মীদের দূরে কোনও নিভৃত জায়গায় গিয়ে খদ্দেরের সঙ্গে কথা বলতে হচ্ছে, এবং তা অত্যন্ত বিপজ্জনক। যৌনকর্মীদের প্রতি বৈষম্য যতদিন না কমবে ততদিন কোনও কিছুই বদলাবে না। ওই আইনের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন তাঁরা।

শুধু আইনই নয়, এই উৎসবে যৌনতার প্রদর্শনীও ছিল। কাজের মর্যাদা তুলে ধরতেই এই প্রচেষ্টা। মেয়েরা যে শুধুমাত্র যৌনতার যন্ত্র নয়, তা তুলে ধরা সবার সামনে।