মোহন তাঁবুতে গোলাপ হাতে লাল-হলুদের গান্ধিগিরি, তবুও হার দলের

0
361

গতকালই মোহনবাগান সমর্থকরা খেলা শেষে ভেঙে-ছিড়ে তছনছ করেছিল ইস্টবেঙ্গলের শতবর্ষের স্বাগত তোরণ। শুক্রবার ছিল ইস্টবেঙ্গেলের কলকাতা লিগের খেলা। ফলে গন্ডোগোলের আশঙ্কায় বাড়তি নিরাপত্তা মোতায়েন করেছিল কলকাতা পুলিশ। এদিন ইস্টবেঙ্গলের খেলা দেখতে আসা সমর্থকরা অবশ্য বিক্ষোভের ধারেকাছেও গেলেন না। তাঁরা লাল-হলুদ গোলাপ নিয়ে গান্ধিগিরির পথেই হাঁটলেন। সেই গোলাপ নিয়ে গঙ্গাপাড়ের মোহনবাগান তাঁবুতে সটান হাজির হয়ে যান বেশ কয়েকজন ইস্টবেঙ্গল সমর্থক। ক্লাব গেটের সামনে গোলাপ রেখে চলে আসেন তাঁরা। তবে খানিক পড়েই অবশ্য টনক নড়ে পুলিশের। গোলোযোগ এড়াতে তাঁদের তাড়া করে ঘোরসাওয়ার পুলিশ।


অন্যদিকে ডুরান্ডে ভালো শুরু করলেও কলকাতা লিগের প্রথম ম্যাচেই হার দিয়ে শুরু করল শতবর্ষের ইস্টবেঙ্গল। শুক্রবার ঘরের মাঠে জর্জ টেলিগ্রাফের কাছে ১-০ গোলে হেরে মাঠ ছাড়লো আলেসান্দ্রো বাহিনী। খেলা শেষের বাঁশি বাজার কয়েক মুহুর্ত আগে লাল-হলুদের জালে বল জড়িয়ে দিয়ে জর্জকে টানা তিন ম্যাচে জয় এনে দিলেন জাস্টিন মর্গ্যান। এদিন এক বিদেশি নিয়েই মাঠে নেমেছিল ইস্টবেঙ্গল। সইয়ের ফাঁদে এদিন খেলতে পারেননি কোলাডো, বোরহা ও কাশিম আইদারা। ফলে একমাত্র বিদেশি হিসেবে এদিন লাল-হলুদ দলে ছিলেন কয়েকদিন আগেই সই করা মার্তি ক্রেসপি। ফলে এদিন তিনি বিশেষ সুবিধা করতে পারেননি। সারা ম্যাচে বহু সুযোগ তৈরি করলেও এদিন সেগুলি গোলে পরিবর্তন করতে পারেননি বিদ্যাসাগর সিং- মার্তি ক্রেসপিরা। কারণ একদা লাল-হলুদের সহকারী কোচ রঞ্জন ভট্টাচার্য গোটা দলকেই রক্ষণে নামিয়ে আনেন। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ের চার মিনিটে এক প্রতি আক্রমণে গোল করে জয় ছিনিয়ে নেন জর্জ স্ট্রাইকার জাস্টিন মর্গ্যান।