কাঁটাতারের দুর্গা

0
947

আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে মাত্র ৫০ মিটার দূরেই দুর্গামণ্ডপ। আর সেখানেই এখন ভিড় আট থেকে আশির। নদিয়ার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের তেহট্ট ভাটুপাড়া আদি বারোয়ারির পাহারায় থাকেন সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা।
নয় নয় করে এই পুজোর বয়স ১৫২ বছর। কালের নিয়মে পুজোর জাঁকজমক কমেছে। কিন্তু ঐতিহ্য আজও বিরাজমান। স্বাধীনতার আগেও এখানে দুই দেশের মানুষ একত্রে আয়োজন করতেন দুর্গাপুজোর। কিন্তু এখন কাঁটাতারের পাঁচিল উঁচিয়ে দুই বাংলাকে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। তাই মাঝেমধ্যেই চাষের জমি উজিয়ে ওপার বাংলার মানুষ কাঁটাতারের ওপারে দাঁড়িয়ে ঠাকুর দর্শন করলেও এপারে আসা আর হয় না।
বিএসএফ কড়া নজরদারি রাখে এই কটাদিন। তাই বলে কি পুজোর আনন্দ মাটি হবে? একদম না, ষষ্ঠী থেকেই গোটা গ্রামের মানুষ দুর্গামণ্ডপেই ডেরা বাঁধেন। কঁচিকাঁচার দল হুল্লোড় করেই কাটিয়ে দেয় পুজোর কটা দিন।
এখানে মা দুর্গাকে নিবেদন করা হয় কয়েক রকমের নাড়ু। এটাই এই প্রাচীন পুজোর বিশেষত্ব। সীমান্তের কাঁটাতার এখানকার মানুষগুলোর কাছে বেদনাদায়ক হলেও পুজোর কটাদিন আনন্দের রোশনাই জ্বেলে দেয় ভাটুপাড়া আদি বারোয়ারির ১৫২ বছরের ‘দুগ্গা মা’।