ডাক্তারের হাত ধরেই জেলে মাদকের রমরমা ব্যবসা

0
51

এ যেন সর্ষের মধ্যেই ভূত। ডাক্তারের হাত ধরেই আলিপুর জেলে গাঁজা, মদ, মোবাইলের রমরমা ব্যবসা। তার ব্যাগে করেই পৌঁছে যাচ্ছিল বন্দিদের হাতে। কিন্তু চোরের দশ দিন তো গৃহস্থের একদিন। ঠিক সেভাবেই শুক্রবার পুলিশের জালে ধরা পড়লেন ডাক্তার অমিতাভ চৌধুরি। তাঁর ব্যাগ থেকে উদ্ধার হল প্রায় দুই কেজি গাঁজা, চল্লিশটি মোবাইল ও চার লিটার মদ। জেলের বন্দিদের হাতে কিভাবে নিয়মিত গাঁজা, মোবাইল, মদ পৌঁছে যাচ্ছে। বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছিল কারাকর্তাদের। পুলিশের নিচুতলার কর্মীদেরও তল্লাশি করে তারপর জেলের ভিতরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু জেলের চিকৎসক বরাবরই ছিলেন সন্দেহের বাইরে। তবে সম্প্রতি আলিপুর জেলের উচ্চপদস্থ কর্তাদের কাছে অভিযোগ আসে, উপরমহলের কেউই এই পাচারের কাজে যুক্ত। গোপনেই তদন্ত শুরু হয়। তখনই অমিতাভ চৌধুরির নাম উঠে আসে। শুক্রবার রাত সাড়ে দশটায় নাগাদ অমিতাভবাবু জেলে প্রবেশ করেন। আচমকাই আটকানো হয় তাঁকে। ঘটনাস্থলে ছিলেন উচ্চপদস্থ কর্তারাও। সবার সামনেই ডাক্তারের তল্লাশি নেওয়া হয়। তখনই ডাক্তারের ব্যাগ মেলে দু’কেজি গাঁজা। আরও তল্লাশি চালাতেই চক্ষু চড়ক গাছ নিরাপত্তা ছোট্ট ব্যাগ থেকেই মেলে চল্লিশটি মোবাইল। জলের বোতলে জলের পরিবর্তে মেলে মদ।