থানায় ঢুকে কনস্টেবলকে মার

0
778

এর আগেও রাজ্যের পুলিশকে ভয়ে টেবিলের তলায় লুকোতে দেখা গিয়েছে। খাস কলকাতাতেও আক্রান্ত হতে হয়েছে পুলিশকে। ফের একবার সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হল কলকাতায়। এবার টালিগঞ্জ থানার ভিতরে ঢুকে কনস্টেবলকে মার ও টেবিল চাপড়ে শাসানির ঘটনা ঘটল। রবিবার রাতে এই ঘটনায় ধুন্ধুমার বেঁধে যায় টালিগঞ্জ থানা চত্বরে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ সাদার্ন অ্যাভিনিউতে মত্ত অবস্থায় বাইক চালানোর সময় এক যুবককে আটকায় পুলিশ। পালটা শাসানি ও গালিগলাজ শুরু করে রণজয় হালদার নামে ওই যুবক। ফলে তাঁকে আটক করে টালিগঞ্জ থানায় নিয়ে আসেন এক কনস্টেবল। এরপরই থানায় চলে আসে রনজয়ের পরিবার ও বন্ধুবান্ধব। শুরু হয় থানার ভিতর তান্ডব। পুলিশের দাবি, তাঁদের বিক্ষোভ চলাকালীন কয়েকজন টেবিল চাপড়ে শাসাতে শুরু করেন কয়েকজন। বাধা দিতে গেলে আক্রান্ত হন এক কনস্টেবল, তাঁকে ফেলে মারধোর করা হয়েছে। খবর পেয়ে অন্য থানা থেকে অতিরিক্ত বাহিনী এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। অন্যদিকে, রণজয় হালদারের পরিবারের অভিযোগ, নাকা চেকিংয়ের নামে পুলিশই মত্ত অবস্থায় মারধোর করেন তাঁকে। এই নিয়ে টালিগঞ্জ থানাতেই পালটা অভিযোগ দায়ের করেছেন রণজয়ের পরিবার। যদিও গভীর রাতে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, ঘটনার প্রায় ১১ ঘন্টা পর সোমবার সকালে একটি স্বতপ্রণোদিত মামলা দায়ের করা হয়েছে কলকাতা পুলিশের তরফ থেকে। এই ঘটনা নিয়ে উচ্চপর্যায়ের তদন্ত করা হবে বলে জানা গিয়েছে। প্রকৃত দোষীদের শাস্তি হবে বলে জানিয়েছে লালবাজার।