রাহুলের ইফতার পার্টি

0
84

রাহুলের দেওয়া ইফতার পার্টির দিকে নজর ছিল গোটা দেশেরই। এটা শুধুমাত্র ইফতার নয়, বিরোধীদের মেলবন্ধনও বটে, দাবি রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। কৌতূহল ছিল বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির উপস্থিতি নিয়ে। সবমিলিয়ে প্রথম ধাপে কিছুটা সফল কংগ্রসের সর্বভারতীয় সভাপতি। যদিও অপ্রত্যাশিতভাবেই বিরোধী দলের প্রধান নেতানেত্রীদের দেখা মেলেনি। মায়াবতী, অখিলেশ যাদব ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো নেতানেত্রীরা গরহাজির ছিলেন। তবে প্রতিনিধি পাঠিয়েছিলেন তাঁরা। অনুষ্ঠানে তৃণমূল নেত্রীর প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী। রাহুলের পাশের চেয়ারেই বসেছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। আধ ঘণ্টা পরে তিনি উঠে যাওয়ায় সেই আসনে এসে বসেন দীনেশ। ইফতারের পরে দীনেশ জানান, ‘দেখা হওয়ার পরেই রাহুল গাঁধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কুশল জানতে চেয়েছেন। তাঁকে নমস্কার জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি।’


এছাড়াও প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, প্রতিভা পাটিল, প্রাক্তন উপরাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারি সঙ্গে আলোচনায় দেখা যায় সীতারাম ইয়েচুরিকেও। রসিকতা করে ইয়েচুরিকেও তাঁর ফিটনেস ভিডিও প্রকাশের কথা বলেন রাহুল। এছাড়াও ইফতার পার্টিতে উপস্থিত ছিলেন বিএসপি নেতা সতীশ মিশ্র, ডিএমকের কানিমোঝি মতো নেতারাও। যদিও সবমিলিয়ে আপাত দৃষ্টিতে রাজনৈতিক আলোচনা নয়, পারস্পরিক সৌজন্যতাই বেশি ফুটে উঠেছে।