কমিশনের নির্দেশে সরলেন চতুর্থ, অষ্টম শ্রেণি পাশ প্রিসাইডিং অফিসাররা

0
1132

খবরের জেরে সরানো হল চতুর্থ ও অষ্টম শ্রেণি পাশ দুই প্রিসাইডিং অফিসারকে। সপ্তমদফা ভোটের প্রস্তুতি প্রায় শেষ। রাজ্য ও রাজ্যের বাইরে বিভিন্ন কেন্দ্রে নিজ নিজ দায়িত্ব বুঝে নিচ্ছেন প্রিসাইডিং অফিসার সহ পোলিং এজেন্টরা। ভোটগ্রহণের দিন বুথে এক এবং অদ্বিতীয় ব্যক্তি হলেন প্রিসাইডিং অফিসার। পদাধিকার বলে তাঁর সিদ্ধান্তই শেষ কথা। শনিবার সকালে দমদম লোকসভা কেন্দ্রের পানিহাটি বিধানসভা গুরুনানক ইনস্টিটিউট থেকে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। প্রিসাইডিং অফিসারের যোগ্যতা অষ্টম ও চতুর্থ শ্রেণি পাশ। ২১৪ নম্বর বুথে দায়িত্ব দেওয়া হয় উমেশ হালুয়াই নামে অষ্টম শ্রেণি পাশ মেটাল অ্যান্ড স্টিল কারখানার এক কর্মীকে। কিন্তু তিনি নিজেই এই দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেন। তাঁর কথায়, তাঁরা শ্রমজীবী মানুষ, খাতা-কলমের কাজ করা তাঁদের পক্ষে সম্ভব নয়। ১৩৩ নম্বর বুথে প্রিসাইডিং অফিসার আর কে সাঁতরা চতুর্থ শ্রেণি পাশ বলে জানান ওই কেন্দ্রের আরেক ভোটকর্মী। সংবিধান অনুসারে গ্রুপ ডি-র কোনও কর্মীকে প্রিসাইডিং অফিসারের পদে রাখা যায় না। কিন্তু তা সত্ত্বেও এই সিদ্ধান্ত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। এই পরিস্থিতিতে প্রিসাইডিং অফিসার ও ভোট কর্মীরা বুথে যেতে ভয় পাচ্ছেন বলে সংবাদ মাধ্যমের সামনে জানান। সিএন- এই খবরে প্রচারকিত হওয়ার পরেই ওই দুই অফিসারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।