ফের স্কুলে ছাত্রীকে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ, গ্রেফতার নাচের শিক্ষক

0
228

জিডি বিড়লার ছায়া এবার দেশপ্রিয় পার্কের কারমেল প্রাইমারি স্কুলে। অভিযোগ, স্কুলেই দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নিগ্রহ করা হয়েছে। এই ঘটনায় স্কুলের নাচের শিক্ষক সৌমেন রানাকে কাঠগড়ায় তুলেছেন অভিভাবকরা। যার জেরে শুক্রবার সকাল থেকেই স্কুলের সামনে বিক্ষোভে শামিল হন তাঁরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী।
অভিভাবকদের একাংশের দাবি, গত প্রায় একমাস ধরে ওই শিক্ষক ছাত্রীর উপর যৌন নির্যাতন চালিয়ে আসছেন। এ বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই এদিন আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। যদিও স্কুলের প্রিন্সিপাল জানিয়েছেন, অভিযোগ প্রমাণিত হলে দোষীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে অভিভাবকদের অভিযোগ, গোটা ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর তাঁরা প্রিন্সিপালের কাছ থেকে কোনো সহযোগিতা পাননি। বরং তিনি অভিভাবকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন বলেই অভিযোগ। এদিকে, এরই মধ্যে অভিযুক্ত শিক্ষককে স্কুলে থেকে বের করে নিয়ে যায় পুলিশ। যা দেখে উত্তেজিত হয়ে পড়েন আন্দোলনকারী অভিভাবকরা। দু-পক্ষের মধ্যে ধস্তাধস্তিও শুরু হয়ে যায়। সেই সময় টালিগঞ্জ থানার ওসি মাথায় চোট পান বলে অভিযোগ। পাল্টা পুলিশের বিরুদ্ধেও লাঠিচার্জের অভিযোগ ওঠে। পরে দ্বিতীয় শ্রেণির ওই পড়ুয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে টালিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। যার ভিত্তিতে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে পক্সো আইনে মামলাও রুজু করা হয়। অন্যদিকে, শিশুটিকে মেডিকেল টেস্টের জন্য এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রায় ৪০ মিনিট ধরে তাকে পরীক্ষা করেন চিকিত্সকরা।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি ডিজি বিড়লা ও জিএম বিড়লা স্কুলেও দুই ছাত্রীর উপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল। যার জেরে গোটা রাজ্যে সমালোচনার ঝড় ওঠে। তারপর আবারও একই ঘটনা ঘটায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে নানা মহল।