যুব মোর্চার বিক্ষোভে জলকামান, কাঁদানে গ্যাস, রণক্ষেত্র ধর্মতলা

0
572

বিদ্যুতের মাশুল নিয়ে পথে নামলো বিজেপির যুব মোর্চা। বুধবার এই মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল চাঁদনী চকের সামনে যোগাযোগ ভবনের সামনে। এদিন বিজেপি যুব মোর্চার বিক্ষোভ ঠেকাতে তিনটি স্তরের ব্যারিকেড করেছিল পুলিশ। তবে বিজেপি কর্মীরা দুটি ব্যারিকেড ভেঙে তৃতীয় স্তরে পৌঁছলেই জলকামান ব্যবহার করে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে পুলিশ। বিজেপি যুব কর্মীদের অভিযোগ বেপরোয়া লাঠিচার্জ করে পুলিশ। এরফলে মাথা ফাটে বেশ কয়েকজনের। কাঁদানে গ্যাসের সেলও ফাটিয়েছে পুলিশ। জলকামানের সামনেও দমে না গিয়ে বিক্ষোভকারীরা এগোনোর চেষ্টা করে এদিন। পুলিশ অনেককেই আটক করেছে বলে জানা গিয়েছে। পুলিশের সঙ্গে শুরু হয় ধস্তাধস্তি। বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়কে দেখা যায় পুলিশ আধিকারিকের সঙ্গে তর্ক করতে। সেন্ট্রাল অ্যাভেনিউয়ে কার্যত বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল।

বুধবার ১২ টা নাগাদ যুব মোর্চার নেতা দেবজিৎ সরকার, রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়, তাপস ঘোষ, সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের মতো নেতৃত্ব সেন্ট্রাল অ্যাভেনিউ ধরে বিশাল মিছিল সিইএসসি-এর সদর দফতর ভিক্টোরিয়া হাউজের দিকে এগোতে শুরু করে। উল্টোদিকে চাঁদনী চকের সামনে পুলিশের তরফে বিশাল বাহিনী, RAF, জলকামান, কাঁদানে গ্যাসের সেলের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। বিদ্যুতের দাম অন্যায়ভাবে বাড়িয়ে দিয়েছে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি বিদ্যুৎ চুরি ও মিটার রিডিংয়ে কারচুপির অভিযোগে বিজেপির যুব মোর্চার পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচী ছিল বুধবার।