অযোধ্যার বিতর্কিত জমি হিন্দুদের, বিকল্প জমি মুসলিমদের

0
1140

অযোধ্যার বিতর্কিত জমির পুরোটাই পাচ্ছেন হিন্দুরা। বিকল্প জমি দেওয়া হবে মুসলিমদের। তবে হিন্দুরা জমি পাবেন কতগুলি শর্তে। কেন্দ্রকে একটি পরিকল্পনা তৈরি করতে হবে। একটি অছি পরিষদ বা ট্রাস্ট গড়তে হবে। ভিতরের চত্বর ওই ট্রাস্টকে দিতে হবে। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে উপযুক্ত জায়গায় ৫ একর জমি দিতে হবে। তিন মাসের মধ্যে কেন্দ্রে ওই ট্রাস্ট গড়তে হবে। নির্মোহী আখড়াকেও যথাযোগ্য প্রতিনিধিত্ব দিতে হবে। মন্দির নির্মাণের বিষয়টি দেখবে ওই ট্রাস্ট। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়, বিচারপতি এস এ বোবদে, বিচারপতি অশোক ভূষণ ও বিচারপতি এস আবদুল নাজিরের বেঞ্চ তাঁদের সর্বসম্মত রায়ে বলেন, ধর্মতত্ত্বে ঢোকা তাদের পক্ষে সমীচিন হবে না। বিশ্বাস ব্যক্তিগত বিষয়। হিন্দুরা বিশ্বাস করেন, ওখানেই রামের জন্মস্থান। ধর্মনিরপেক্ষ সংবিধান পারস্পরিক শ্রদ্ধা দাবি করে। রামলালা বিরাজমানের আবেদন নিয়ে গগৈ বলেছেন, মসজিদের তলায় কাঠানো রয়েছে বলেই এখন তার মালিকানা দাবি করা যায় না। তা সুপ্রিম কোর্ট সেটাকে হিন্দু কাঠামো বলে মনে করলেও। সেখানে মুসলিমরা নামাজ পড়া বন্ধ করেননি বা জায়গা ছেড়েও যাননি। হিন্দুরা সেখানে রাম চবুতরা এবং গর্ভগৃহে পুজো করছেন। মুসলিমরা বিতর্কিত সপ্পত্তিতে তাদের অধিকার প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন। এএসআইয়ের রিপোর্ট উল্লেখ করে গগৈ বলেন, খালি জমিতে মসজিদ তৈরি হয়নি। মসজিদের তলায় যে কাঠামো ছিল তা ঐসলামিক স্থাপত্য নয়। তবে তারা বলেনি মসজিদ বানানোর জন্য মন্দির ভাঙা হয়েছিল। শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের আবেদন খারিজ করে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, তারা সর্বসম্মতিক্রমে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকেই মুসলিমদের প্রতিনিধি বলে জানিয়েছে।
২০১০ সালের সেপ্টেম্বরে এলাহাবাদ হাইকোর্টের তিন সদস্যের বেঞ্চ অযোধার ২.৭৭ একর জমির মালিকানা নিয়ে রায় দেয়। ১৯৫০ থেকে ১৯৮৯ সালের মধ্যে এনিয়ে পাঁচটি আবেদন জমা পড়েছিল। আদালত মসজিদের গম্বুজ এলাকায় যেখানে রামলালার মূর্তি রয়েছে, সেটি পাবে হিন্দুরা। কারণ তারা মনে করে সেখানেই জন্ম হয়েছিল রামের। বাইরের চত্বরে রাম চবুতরা ও সীতা রসোই পাবে নির্মোহী আখাড়া। এবং বাকি অংশ থাকবে মুসলিমদের। সেখানে কারও অধিকার ক্ষুন্ন না করে প্রবেশ ও প্রস্থানের অধিকার থাকবে সবারই। উল্লেখ্য, গোটা এলাকাই কেন্দ্রীয় সরকারের অধিগৃহীত। এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করেই মামলা যায় সুপ্রিম কোর্টে।