ভূপালের ছাত্রীনিবাস ধর্ষণ কাণ্ডে সরগরম রাজ্য রাজনীতি

0
14

ভূপালের ছাত্রীনিবাসে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের ঘটনায় নয়া মোড়। প্রথমত, ভোপালের অবোধপুরির ক্রিস্টাল আইডিয়াল সিটি হস্টেলের ডিরেক্টর অশ্বিনী শর্মার বিরুদ্ধে নতুন করে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করলেন এক মহিলা। কয়েকদিন আগেই দায়ের করেছিলেন তিন জন। এই নিয়ে প্রকাশ্যে এল চার মহিলার কাহিনী। সেই সঙ্গে প্রকাশ্যে এলো একটি পুরনো ভিডিও। ভিডিওটি প্রকাশ করেছেন কংগ্রেসের মুখপাত্র শোভা ওঝা। সেখানে অভিযুক্তকে দেখা গেছে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহানের পাশে। মুখ্যমন্ত্রীর পা ছুঁতেও দেখা গেছে তাকে। সবমিলিয়ে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই সরগরম হয়ে উঠল মধ্যপ্রদেশের রাজ্য রাজনীতি।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চতুর্থ মহিলা ইনদওর পুলিশের কাছে বয়ান দিয়েছেন। তিনি সেখানে বলেছেন, তাঁকে আলাদা ঘরে ডেকে নিয়ে পর্নোগ্রাফি দেখতে বাধ্য করা হত। সেই সঙ্গে চলত ধর্ষণ। এরকমটা চলেছে প্রায় টানা ৬ মাস। প্রথম তিন মহিলার অভিযোগ পেয়েই গত বুধবার অভিযুক্ত ডিরেক্টর অশ্বিনী শর্মাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ভোপালের পুলিশ আধিকারিক ধর্মেন্দ্র চৌধুরি জানান, ইনদওর পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। মামলাটি ভোপালে পাঠিয়ে দিতে বলা হয়েছে। ধর্ষণ, জোর করে আটকে রাখা, দলিতদের বিরুদ্ধে অত্যাচার-সহ একাধিক ধারা আনা হয়েছে ধৃতের বিরুদ্ধে। অন্য দিকে, ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই সরব বিরোধীরাও। যদিও ধৃতের সঙ্গে সম্পর্কের অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র রাহুল কোঠারি বলেন, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্তও শুরু হয়েছে। তার পরেও স্পর্শকাতর বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি করছে কংগ্রেস। এই ঘটনার পর মধ্যপ্রদেশের সব হস্টেল প্রতি মাসে পরিদর্শনের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।