ইলিশের বারোআনাই বাংলাদেশের

0
184

ইলিশ উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন প্রথম। গোটা দুনিয়ায় ইলিশ উৎপাদনের ৭৫ শতাংশই বাংলাদেশে হচ্ছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৫ লাখ ১৭ হাজার টন ইলিশ উৎপাদন হয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিজ্ঞানীদের আশা, ২০২২ সালে বাংলাদেশ হবে শীর্ষ মাছ উৎপাদনকারী দেশ।
বাংলাদেশে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে দেশে ইলিশ উৎপাদিত হয়েছে ৫ লাখ ১৭ হাজার টন। যা ২০১৬-১৭ অর্থবছরের চেয়ে ২১ হাজার টন বেশি। গত ১০ বছরে দেশে ইলিশ উৎপাদন বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। ২০০৭-০৮ অর্থবছরের দেশে ইলিশ উৎপাদন ছিল মাত্র ২ লাখ ৯০ হাজার টন। যা এবার ৫ লাখ টন ছাড়িয়েছে।
সমুদ্রে ৬৫ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ এবং মাছ উৎপাদনে বিশেষ বিশেষ কর্মসূচির জন্য বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মডেল। ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ সুরক্ষিত হওয়ায় এবং খোকা ইলিশ ধরা থেকে জেলেদের বিরত রাখায় গত ১০ বছরে ইলিশের উৎপাদন ক্রমান্বয়ে বেড়েছে। এ সময়ে ইলিশ ডিম দিয়েছে ৭ লাখ ২৮ হাজার কেজি। বিএফআরআই সূত্রে জানা যায়, একটি ইলিশ ৩ থেকে ২১ লাখ পর্যন্ত ডিম দেয়।
বিএফআরআই সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশে মোট ৩ প্রজাতির ইলিশ পাওয়া যায়। এর মধ্যে ২টি (চন্দনা ও গোর্তা ইলিশ) সারা জীবন উপকূল ও সাগরে কাটায় এবং অপর ১টি মিঠে জল ও লোনা জলে জীবন অতিবাহিত করে। ইলিশ স্রোতের বিপরীতে দৈনিক ৭১ কিলোমিটার অভিপ্রয়াণ করতে পারে। পৃথিবীর মোট ১১টি দেশে এখন ইলিশ পাওয়া যায়। সেগুলি হচ্ছে- বাংলাদেশ, ভারত, মিয়ানমার, পাকিস্তান, ইরান, ইরাক, কুয়েত, বাহরিন, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও তাইল্যান্ড। বিশ্বে আহরিত ইলিশের প্রায় ৭৫ ভাগ বাংলাদেশ আহরণ করে। দ্বিতীয় স্থানে মিয়ানমার এবং তৃতীয় স্থানে ভারত।
গতবছর বরিশাল সদর, হিজলা ও মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার ৮২ কিলোমিটার এলাকাকে ইলিশের ৬ষ্ঠ অভয়াশ্রম ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে অধিক পরিমাণে খোকা ইলিশ সুরক্ষিত হবে বলে চলতি অর্থবছরে ইলিশের উৎপাদন আরও বাড়বে বলে গবেষণরা মনে করছেন।