দেশের ১০% ধনীর হাতে ৭৭% সম্পদ, ৬০% মানুষের হাতে সম্পদের মাত্র ৪.৮%

0
602

ভারতের ১০ শতাংশের হাতে রয়েছে মোট জাতীয় সম্পদের ৭৭.৪%। ১ শতাংশের হাতে রয়েছে ৫১.৫৩%। তলার ৬০% মানুষের হাতে মাত্রই ৪.৮%। ভারতের ৯ জন কোটিপতির সম্পদ তলার ৫০% মানুষের সম্পদের সমান। সমীক্ষা দেখাচ্ছে, এই বৈষম্যের মূল শিকার মহিলা ও শিশুরা। গতবছর প্রতিদিন দেশের কোটিপতিদের সম্পদ বেড়েছে ২২০০ কোটি টাকা। দেশের মাত্র ১% ধনীর সম্পদের বহর বেড়েছে ৩৯%। জনসংখ্যার অর্ধেকের সম্পদ বেড়েছে ৩%। সোমবার প্রকাশিত অক্সফ্যামের রিপোর্ট বলছে, গোটা দুনিয়ায় কোটিপতিদের সম্পদ বেড়েছে ১২%। গরিবদের সম্পদ কমেছে ১১%। রিপোর্ট জানাচ্ছে, ভারতের ১৩ কোটি ৬০ লাখ মানুষ দেশের দরিদ্রতম ১০%। ২০০৪ সাল থেকে তারা ঋণের বোঝা মাথায় নিয়েই রয়েছেন। ডাভোসে পাঁচদিনের বিশ্ব অর্থনৈতিক সম্মেলনে জড়ো হওয়া বিশ্বনেতাদের কাছে তাদের আবেদন, ক্রমশ চওড়া হয়ে চলা ধনী-দরিদ্রের এই ব্যবধান বিশ্বজোড়া গণবিক্ষোভের জন্ম দেবে। অক্সফ্যামের এক্সিকিউটিভ ডিরেকটর উইনি বায়ানিয়ামার কথায়, ভারতে ধনীরা গাদা গাদা সম্পদ জড়ো করছে, আর দরিদ্ররা প্রতিদিনের খাবার আর বাচ্চাদের ওষুধ কিনতে জেরবার হয়ে যাচ্ছে। এটা নৈতিকভাবে চূড়ান্ত অশ্লীল। দেশের ধনী ১ শতাংশের সঙ্গে ৫০ শতাংশের এই ফারাক সামাজিক ও গণতান্ত্রিক কাঠামোকে ভেঙে দেবে। ভারতের ৩৮ কোটির হাতে যে সম্পদ, তা মাত্র ২৬ হাতেই রয়েছে। গতবছরও এই সংখ্যাটা ছিল ৪৪ জন। বিশ্বের সবথেকে ধনী অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসের সম্পদ বেড়েছে ১১ কোটি ২০ লাখ।