শবরীমালায় ঢুকতে চেয়ে আবেদন ৫৫০ মহিলার

0
21

শবরীমালা মন্দিরে প্রবেশের জন্য পুলিশি সহায়তা চেয়ে নাম নথিভুক্ত করেছেন ৫৫০ মহিলা। সমস্ত রকম হুমকি, প্রতিবন্ধকতা উড়িয়ে ধীরে ধীরে এগিয়ে আসছেন তাঁরা। এদের সবারই বয়স ৫০ বছরের মধ্যে। সবার মতো তাঁরাও চান মন্দির দর্শন ও পুজো দিতে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে মুছে গেছে বয়সের সীমারেখা। সব বয়সী মহিলাদের জন্যই উম্মুক্ত হয়েছে মন্দিরের দরজা। এতদিন পর্যন্ত ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সী মহিলাদের মন্দিরে প্রবেশাধিকার ছিল না। যদিও সেই রায়ের বিরুদ্ধে পথে নেমেছেন প্রাচীন পন্থীরা। সেই রেশ এখনও বর্তমান। আগামি ১৬ নভেম্বর ফের খুলবে মন্দিরের দরজা। ত্রিবাঙ্কুর দেবাসম বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, দেব দর্শনের জন্য এখন পর্যন্ত আবেদন করেছেন প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ ভক্ত। যার মধ্যে রয়েছেন ৫৫০ জন মহিলা, যাদের বয়স ১০ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। এরা কেরল পুলিশের অনলাইন পরিষেবার মাধ্যমে মন্দির দর্শনের জন্য নাম নথিভুক্ত করেছেন। ২৮ সেপ্টেম্বর রায় ঘোষণার পর থেকেই বিক্ষোভের ঝড় ওঠে কেরল জুড়ে। মন্দিরের যাওয়ার রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে বিভিন্ন কট্টরবাদী হিন্দু সংগঠনের সদস্যরা। এপর্যন্ত ১৫ জন মহিলাকে আটকে দেয় বিক্ষোভকারীরা। শারীরিকভাবে হেনস্থা করা হয় অনেক মহিলাকেই। এবার তাই আরও সতর্ক প্রশাসন। অশান্তি এড়াতে খোলা হয়েছে অনলাইন পোর্টাল। ভক্তরা এই পোর্টালের মাধ্যমে আয়াপ্পার মন্দিরে পূজা দেওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন। শুক্রবার পর্যন্ত ছিল আবেদন করার সময়। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে এর ফলে যারা আশান্তি বাধাতে চায় তাদের চিহ্নিত করা সহজ হবে। নিরাপত্তা জনিত পরীক্ষা পাশ করে তবেই ভক্তরা মন্দিরে প্রবেশের অনুমতি পাবেন। আবেদনকারী ভক্তদের টোকেন দেওয়া হবে। সেই টোকেন দেখিয়ে নিলাক্কল পর্যন্ত নিজেদের গাড়ি নিয়ে যেতে পারবেন। তারপরে বাকি রাস্তা কেরল সরকারের পরিবহন দফতরের বাসে চড়ে যেতে হবে। মহিলাদের সমস্তরকমের নিরাপত্তা দেওয়া হবে বলেও আশ্বস্ত করা হয়েছে।