কাশ্মীরে ৫ শ্রমিকের খুনের পিছনে জৈশ, অনুমান গোয়েন্দাদের

0
569

কাশ্মীরের কুলগামে মুর্শিদাবাদের পাঁচ বাঙালি শ্রমিকের খুনের পিছনে জৈশ এ মহম্মদের হাত রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। গোয়েন্দাসূত্রের খবর, পাকিস্তানের ওই জঙ্গি সংগঠনই এই হামলার পিছনে থাকতে পারে। যদিও কেউই এই হামলার দায় এখনও স্বীকার করেনি। পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, নিহতদের একজনকে কাশ্মীর ছেড়ে যেতে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। মারধোর করা হচ্ছিল। কাশ্মীরে জৈশের জঙ্গিরা ঢুকেছে বলে আগেই সতর্ক করেছিল গোয়েন্দা বিভাগ। মঙ্গলবার জঙ্গিদের হাতে খুন হন রাজ্যের পাঁচ শ্রমিক। তাঁদের লক্ষ্য করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এলোপাথাড়ি গুলি চালায় জঙ্গিরা। নিহতদের বাড়ি মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিতে। তাঁরা হলেন, নইমুদ্দিন শেখ (২৮), মুরসালিন শেখ (৩০), রফিক শেখ (২৮), কামরুদ্দিন শেখ (৩০), রফিকুল শেখ (৩০)। নিহতরা সবাই দিনমজুর। বাড়িভাড়া নিয়ে কুলগামের কাতরাসু গ্রামে থাকতেন তাঁরা। তাঁদের লাইন করে দাঁড় করিয়ে পরপর গুলি করা হয়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁদের। জঙ্গিদের কোন গোষ্ঠী এই ঘটনায় জড়িত তা জানা যায়নি। কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকেই আক্রান্ত হচ্ছেন ভিনরাজ্যের লোকজন। সোমবার উধমপুরে এক ট্রাকচালক খুন হয়েছেন। ৫ আগস্ট থেকে এই নিয়ে চারজন ট্রাক ড্রাইভার জঙ্গিদের গুলিতে মারা গেলেন। ২৪ অক্টোবর সোপিয়ানে ২ জন ট্রাক ড্রাইভার খুন হন। তার আগে ১৪ অক্টোবর খুন হন রাজস্থানের আরও এক ট্রাকচালক। ২ দিন পরই আপেল ব্যবসায়ী চরণজিৎ সিং খুন হন জঙ্গিদের গুলিতে। একই দিনে পুলওয়ামার এর ইটভাটায় গুলি করে মারা হয় ছত্তিশগড়ের এক শ্রমিককে।