চিটফান্ড তদন্তে নজরে ৩২

0
119

সারদা এবং আইকোর মামলা তদন্তে ৩২ জনের নামের তালিকা তৈরি করল সিবিআই। তালিকায় বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী, প্রভাবশালী ব্যক্তির পাশাপাশি কয়েকজন প্রাক্তন সাংবাদিকের নাম রযেছে। শীঘ্রই তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করার সম্ভাবনা। বিভিন্ন সময় এই সমস্ত ব্যক্তিরা সারদা এবং আইকোর থেকে সুযোগসুবিধা ভোগ করেছেন বলে সিবিআই সূত্রে খবর। চলতি বছরেই এঁদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে সিবিআই। জিজ্ঞাসাবাদ করে এই তদন্তের আরও গভীরে যেতে চায় সিবিআই। এদিকে সারদা মামলায় বৃহস্পতিবারই ইডি-র দফতরে হাজিরা দেন প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ সৃঞ্জয় বসু।
অন্যদিকে আরেক ভুয়ো অর্থলগ্নি সংস্থা মঙ্গলম অ্যাগ্রো প্রোডাক্টস লিমিটেডের অফিস ও ডিরেক্টরদের বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালাল সিবিআই। ২০০৯ সালে প্রথম শুরু হয়েছিল মঙ্গলম অ্যাগ্রো প্রোডাক্টস। এই সংস্থায় তিনজন প্রধান ডিরেক্টর রয়েছেন, কমলেশকুমার ঘোষ, তপনকুমার দে এবং উজ্জ্বল শিকদার। এই সংস্থা বিগত ৯ বছর ধরে বাজার থেকে বহু অর্থ তুলেছে। কলকাতার পাশাপাশি ঝাড়খণ্ড এবং মুম্বইতেও এদের শাখা রয়েছে বলে সিবিআই সূত্রে খবর। সেবি ও আরবিআইয়ের অনুমোদন ছাড়াই বাজার থেকে কয়েক শো কোটি টাকা তোলার অভিযোগ রয়েছে এই সংস্থার বিরুদ্ধে। ডিরেক্টরদের বাড়ি থেকে ৬ টি ল্যাপটপ এবং বেশকিছু তথ্য উদ্ধার করেছে সিবিআই। পাশাপাশি, তাঁদের বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে বলেও খবর। কলকাতার পাশাপাশি ঝাড়খণ্ড এবং মুম্বইয়ের অফিসেও সিবিআই তল্লাশি অভিযান হবে। ২০১১ সালে এই সংস্থার বিরুদ্ধে প্রথম অভিযোগ জমা পড়ে। অবশেষে বৃহস্পতিবার সকালে তল্লাশি অভিযান চালায় সিবিআই। এই সংস্থার সঙ্গেও একাধিক প্রভাবশালীর নাম উঠে এসেছে বলেই সিবিআই সূত্রে খবর। মঙ্গলমের ৬ টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ইতিমধ্যেই সিল করে দেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে কাদের অ্যাকাউন্টে টাকার লেনদেন হয়েছিল তা খতিয়ে দেখছে সিবিআই।