টালিগঞ্জের ওঁরা তিনজন

0
470

রাজ চক্রবর্তীর শত্রুতে অভিনয় করেই টলিউডের নজর কেড়ে নিয়েছিলেন। তারপর খোকা ৪২০, খিলাড়ি, সন্ধে নামার আগে, পাওয়ার–পরপর হিট ছবি। টালিগঞ্জে তিনি এখন প্রতিষ্ঠিত নায়িকা। তৃণমূল নেত্রীর কাছাকাছি দেখা যেত তাঁকে। তবে মঙ্গলবারের তৃণমূল প্রার্থীতালিকায় নিঃসন্দেহে তিনি অন্যতম বড় চমক। বসিরহাটে ইদ্রিস আলি সরবেন, সকাল থেকেই খবর ছিল বাজারে। কিন্তু তাঁর জায়গায় যে নুসরত আসবেন, এটা বোধহয় ছিল ভাবনার বাইরে। নিঃসন্দেহে সংখ্যালঘুদের মধ্য়ে পরিচিত মুখ তিনি। তাঁর জন্মকর্ম কলকাতাতেই। মডেলিং দিয়ে শুরু ক্যারিয়ারের। সিনেমা-টেলিভিশনে আরেক পরিচিত নাম মিমি চক্রবর্তী। গানের ওপারে সিরিয়ালে পুপের ভূমিকায় নজর কেড়েছিলেন তিনি। মিমি জলপাইগুড়ির মেয়ে, পড়াশোনা অসমে। তবে স্নাতক কলকাতার কলেজ থেকে। অভিনয় শুরু বাপি বাড়ি যা ফিল্ম দিয়ে। তিনি যে যাদবপুরের মতো নামজাদা কেন্দ্রের প্রার্থী তাই বা কজন জানতেন। আরেক অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন তনয়া মুনমুন সেন এখনই সাসংদ। তবে এবার তাঁরে সরিয়ে আনা হল আসানসোলে। তাঁর চ্যালেঞ্জ বাবুল সুপ্রিয়কে হারানো। কঠিন লড়াই সন্দেহ নেই।