পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুরোধের মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যেই রাজ্যে পৌঁছে গেল সেনাবাহিনী। আমফান বিধ্বস্ত এলাকায় দ্রুত উদ্ধার কাজের জন্যই কেন্দ্রের কাছে সেনা নামানোর জন্য অনুরোধ করেছিল রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। আর অনুরোধ যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সম্মতি দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। কয়েক ঘন্টার মধ্যে রাজ্যে পৌঁছে যায় পাঁচ কলাম সেনা। কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় তাঁদের মোতায়েন করা হয়েছে। আপাতত কলকাতার টালিগঞ্জ, বালিগঞ্জ ও বেহালায় কাজ করছে সেনা জওয়ানরা। পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগনার নিউটাউন ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারে উদ্ধার কাজে হাত লাগিয়েছে সেনাবাহিনী। উল্লেখ্য একেকটি কলামে ৩৫ জন করে সেনা জওয়ান থাকে। এরমধ্যে একজন অফিসার ও একজন কমিশনড জুনিয়র অফিসার থাকেন।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় আমফান দক্ষিণবঙ্গে আছড়ে পড়ার পর তিনদিন কেটে গিয়েছে। তবুও পরিস্থিতি খুবই সঙ্গিন রাজ্যের বিস্তীর্ণ এলাকায়। এখনও অনেক জায়গায় গাছ পরে রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে রয়েছে। নেই বিদ্যুৎ, পানীয় জল ও মোবাইল নেটওয়ার্ক। ফলে উদ্ধার কাজে গতি আসছে না। দিকে দিকে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ ও রাস্তা অবরোধ। শুক্রবারই আমফান বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। শনিবার মুখ্যমন্ত্রী নিজে কাকদ্বীপ যান, দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসনের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপরই রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ট্যুইট করে সেনা নামানোর আর্জি জানায়। পাশাপাশি রেল ও পোর্টের কাছেও সাহায্যের আবেদন করে।