লকডাউনে বেশিরভাগ মানুষকে এখন ঘরবন্দি। কারও সঙ্গে ফোনে কথা বলতে গেলেও উঠে আসছে করোনা প্রসঙ্গ। সামাজিক মাধ্যমেও ঘুরে ফিরে করোনা নিয়েই হচ্ছে সব আলোচনা। এত নিয়মের মধ্যে জীবন কাটাতে গিয়ে বেশিরভাগ মানুষ অদ্ভুত সব স্বপ্ন দেখছেন।
মনোবিজ্ঞানের ভাষায়, মানুষের মন দু-রকমের হয়, চেতন ও অবচেতন। আমরা যখন ঘুমিয়ে থাকি তখন এই অবচেতন মনই সক্রিয় হয়ে ওঠে। এর মানে হচ্ছে, মানুষের মনের গভীরে যা কাজ করে, তাই তারা স্বপ্ন দেখে। করোনার জন্য অনেকেই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। বর্তমান অবস্থার পাশাপাশি ভবিষ্যত নিয়েও দুশ্চিন্তা করছেন কেউ কেউ। স্বাভাবিক জীবনে কবে সবাই ফিরতে পারবেন তা নিয়েও অনেকে অপেক্ষায় আছেন। মানুষের এসব চিন্তাই ঘুমের মধ্যে স্বপ্ন হয়ে দেখা দিচ্ছে। লকডাউনে মানুষ সবচেয়ে বেশি যেসব স্বপ্ন দেখছেন-
১. অনেকেই ঘুমের মধ্যে এখন ছোটবেলার চেনা কোন জায়গায় ফিরে যাওয়া দেখছেন। এর মানে হচ্ছে, পরিস্থিতির কারণে সবার মধ্যে যে অনিশ্চয়তা কাজ করছে, সেটা থেকে মুক্তি পেতেই সবাই ছেলেবেলার নিশ্চিত সেই জীবন ফিরে পেতে চাইছেন।
২. বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে আড্ডা দেওয়ার স্বপ্নও দেখছেন কেউ কেউ। এমন স্বপ্ন দেখার অর্থ হচ্ছে পরিচিত জীবনে ফিরে যাওয়া, যেখানে নেই লকডাউনের মতো কোন পরিস্থিতি, মানতে হচ্ছে না সামাজিক দূরত্বে।
৩. নিজের পছন্দের কোনও খাবার খাওয়ার স্বপ্নও দেখছেন কেউ কেউ। এমন স্বপ্ন দেখার কারণ হচ্ছে লকডাউনে অতি প্রয়োজনীয় জিনিস ছাড়া কিছু কেনা যাচ্ছে না। কিন্তু অবচেতন মন প্রিয় খাবার বা প্রিয় অন্য কোনও কিছু মিস করছে। প্রিয় সেই জিনিস তাই স্বপ্নের মাধ্যমেই ধরা দিচ্ছে।