Karachi

শুক্রবারই করাচির জনবহুল এলাকায় ভেঙে পড়েছিল পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের একটি বিমান। করাচি বিমানবন্দর থেকে মাত্র এক কিমি দূরেই ভেঙে পড়ে এয়ারবাস ৩২০-এ বিমানটি। যেটি অবতরণ করছিল সেখানেই। বিমানে ছিলেন ৯৯ জন যাত্রী ও ৮ জন ক্রু মেম্বার। তবে যেহেতু একটি বহুতলেই বিমানটি ভেঙে পড়ে সেহেতু মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেই মনে করছেন করাচি প্রশাসনের শীর্ষকর্তারা। আপাতত ৯৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে এই বিমান দুর্ঘটনায়। আশ্চর্যজনকভাবে বেঁচে গিয়েছেন তিনজন যাত্রী। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, প্রথমে বিমানটি একটি মোবাইলের টাওয়ারে ধাক্কা খায়, পরে মালির এর মডেল কলোনি এলাকায় জিন্না গার্ডেনের বাড়িগুলির ওপরে ভেঙে পড়ে। বেশ কয়েকটি বাড়ি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একটি সিসিটিভি ফুটেজে এই বিমানটি ভেঙে পড়ার ভিডিও ধরা পড়েছে। পাক বিমানমন্ত্রক সূত্রে খবর, প্রথমবার অবতরণ করার ব্যর্থ চেষ্টার পর দ্বিতীয়বার ফের চেষ্টা করেন পাইলট। এরপরই এয়ারট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে পাইলটের কথোপকথন শোনা গিয়েছে। তাতে শোনা যায়, শেষ মুহূর্তে পাইলট বিপদসঙ্কেত দিয়েছেন। তিনি ‘মেডে মেডে মেডে’ (বিমান চলাচলের সাঙ্কেতিক বিপদসঙ্কেত) বলে চিৎকার করতে থাকেন।
দেখুন ভিডিও…