রাজ্যে অতি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমপানের বলি অন্তত ১২ জন। উত্তর ২৪ পরগনায় এক ব্যক্তি ও এক মহিলা গাছ চাপা পড়ে মারা গিয়েছেন। হাওড়ায় মারা গিয়েছে ১৩ বছরের এক কিশোরী। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে হুগলি ও উত্তর ২৪ পরগনায় মারা গিয়েছেন তিনজন। কলকাতার রিজেন্ট পার্কে এক মহিলা ও তাঁর সাতবছরের সন্তান মাথায় ঝড়ে উড়ে আসা জিনিসের ঘায়ে প্রাণ হারিয়েছেন। এখনও ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলি থেকে পুরো খবর পাওয়া যায়নি। বুধবার সারারাতই নবান্নের কন্ট্রোল রুম ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর মতে, এই ঝড় করোনার থেকেও ভয়াবহ। কলকাতা ও জেলাগুলিতে শুরু হয়েছে ত্রাণ ও উদ্ধারের কাজ।