পিতৃতর্পণে গঙ্গায় তলিয়ে গেলেন হুগলির ২

0
62

বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের গলায় আশ্বিনের শারদপ্রাতে আলোকমঞ্জির বেজে উঠতেই শুরু হয়ে গেল শারদোৎসব। সোমবার পিতৃপক্ষের শেষে দেবীপক্ষের সূচনায় ভোর থেকেই গঙ্গার ঘাটে ঘাটে মানুষের ভিড়। এদিন হুগলির উত্তরপাড়ার কোতরং বটতলা গঙ্গার ঘাটে তর্পণ করতে গিয়ে তলিয়ে যান সুবোধ যশ। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে উত্তরপাড়া থানার পুলিস। নিখোঁজ তাঁর খোঁজে তল্লাশি চলছে। শেওড়াফুলির নিস্তারিণী কালীবাড়ি গঙ্গার ঘাটে তলিয়ে গিয়েছেন আরও একজন। তারকেশ্বরের বাসিন্দা সন্দীপ সাঁতরা (৪৫)। এবার পিতৃতর্পণ শুরু হয়েছে দেরিতে। এবছর অমাবস্যার শুরু হয়েছে ভোর নয়, বেলায়। বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকার গণনা, সোমবার সকাল ১০টা ৫০ নাগাদ থেকে মঙ্গলবার সকাল ৯টা ৮ মিনিট পর্যন্ত তর্পণ করা যাবে। গঙ্গার ঘাটে ঘাটে পিতৃপুরুষকে স্মরণ করতে তিলাঞ্জলি হাতে ভিড় করেছেন মানুষজন। কলকাতার পাশাপাশি জেলায় জেলায় শুরু হয়েছে তর্পণ। লোকবিশ্বাস, গয়াসুরের বুকে চিহ্নিত চরণে পুজো দিলে আত্মা প্রেতলোক থেকে অমৃতলোকে গমন করে। এই বিশ্বাস থেকে মহালয়ায় গয়াক্ষেত্রে পিণ্ডদান করেন বহু মানুষ। এদিনই কুমোরপাড়ায় চক্ষুদান হবে দেবীর।