বিশ্বজুড়ে এখন আতঙ্কের এক নাম করোনা ভাইরাস। এই মারণ ভাইরাসের আক্রমণে গোটা বিশ্বই এখন লকডাউনের আওতায়। বন্ধ সমস্ত স্পোর্টস ইভেন্টস। ইংল্যান্ডেও করোনা অতিমারী থাবা বসিয়েছে। ব্রিটেনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই এক লক্ষ ছাড়িয়েছে, যার মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৪,৫৭৬ জনের। ফলে গোটা বিশ্বেই জনপ্রিয় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ (ইপিএল) বন্ধ রয়েছে মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে। কিন্তু এবার ইপিএল-এর বড় বড় ক্লাবগুলি এবার ফের লিগ চালু করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। ঐতিহ্যবাহী এই লিগ ফের ৩ জুন থেকে শুরু হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। এমনটাই প্রস্তাব দিয়েছে ক্লাবগুলি। সূত্রের খবর, ইংল্যান্ড সরকার ফের লিগ চালু করার সবুজ সংকেত দিলেও তাঁরা কোনও দায়িত্ব নিতে নারাজ। সেক্ষেত্রে ক্লাবগুলিকেই নিরাপত্তার যাবতীয় দায়িত্ব নিতে হবে।

শুক্রবারই ইপিএল ক্লাবগুলি ভিডিও কনফারেন্সে নিজেদের মধ্যে বৈঠক করে। সেখানেই ঠিক হয়েছে বড়সড় আর্থিক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতে যেনতেন প্রকারেণ ইপিএল শেষ করতে হবে। সেক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ফাঁকা স্টেডিয়ামেই আয়োজন করা হবে খেলা। ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড, লিভারপুল ও চেলসির মতো ক্লাবগুলিও চাইছে মরসুম শেষ করতে। কারণ ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে জুনেই। এছাড়াও উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও কারা কারা খেলবে সেটা নিয়েও তৈরি হয়ে রয়েছে ধোঁয়াশা। ইপিএল শেষ করতে না পারলে আগামী বছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার ছাড়পত্র পাবেনা কোনও ক্লাবই। কারণ ইপিএল-এ এখনও কোনও ক্লাবই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো পয়েন্ট পায়নি। তবে লিভারপুল আরও দুটি ম্যাচে জয় পেলেই লিগ খেতাব পকেটে ঢুকবে। শুক্রবারের বৈঠকে ১৮ মে থেকে ফুটবলারদের প্রস্তুতি শুরু করা হবে। সেই সঙ্গে জুনের ৩০ তারিখের মধ্যে টুর্নামেন্ট শেষ করে দেওয়ার প্রস্তাবও রাখা হয়েছে।