২০২০ সালেই এআইএফএফ তথা ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি প্রফুল প্যাটেলের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। ফেডারেশনের সংবিধান অনুযায়ী এই পদে তিনি আর থাকতে পারবেন না। ফলে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হযেছে তাঁর স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন কে? সূত্রের খবর, ওই পদে বসছেন এক বাঙালি কর্তা, যিনি বর্তমানে এআইএফএফ-র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আর লিগ কমিটির চেয়ারম্যান। হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন, সুব্রত দত্তের নামই উঠে আসছে ফেডারেশনের পরবর্তী সভাপতি পদে। সবকিছু ঠিক থাকলে তিনিই প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সির পর কোনও বাঙালি হিসেবে এই পদে আসবেন। উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সি অসুস্থ হওয়ার পর থেকেই প্রফুল্ল প্যাটেল সভাপতির দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন। এই বছরই তাঁর ১২ বছরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। সূত্রের খবর, চলতি বছরের শেষেই নির্বাচন হবে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি পদে। সেখানে সর্বসম্মতভাবেই সুব্রত দত্তের নাম উঠে আসছে। ফেডারেশনের নিয়ম অনুযায়ী, সভাপতি পদে দাঁড়াতে হলে শেষ ১২ বছরের মধ্যে চার বছর এআইএফএফ-এর কার্যকরী কমিটির সদস্য হতে হবে। পাশাপাশি টানা চারবছর কোনও রাজ্য সংস্থার সচিব কিংবা সভাপতির দায়িত্ব সামলানোর অভিজ্ঞতাও থাকা দরকার। আবার একসঙ্গে পাঁচটি রাজ্য সংস্থার তরফেও নাম প্রস্তাব করতে হবে মনোনয়নপত্র জমা করার সময়। এর প্রত্যেকটিই সুব্রত দত্ত যোগাড় করতে পারবেন। ফলে কোনও আইনি জটিলতা বা রাজনৈতিক অঙ্ক বদলে না গেলে সুব্রত দত্তই হচ্ছেন এআইএফএফ-র পরবর্তী সভাপতি।