স্মার্টফোনে বাড়ির টয়লেট সিটে থাকা জীবাণুর চেয়েও ১০ গুণ বেশি জীবাণু থাকে। গবেষকরা বলছেন, এই জীবাণু থেকে হতে পারে নানা রোগ। আর এখন তো করোনাভাইরাসের আতঙ্কে তটস্থ পুরো বিশ্ব। তাই পরিচ্ছন্নতাই নিরাপদ থাকার সবচেয়ে উপযুক্ত উপায় মনে করছে সবাই।
যা লাগবে
১. দুটো নরম মসৃণ কাপড়
ফোন মোছার জন্য নরম মসৃণ কাপড় ব্যবহার করুন। শক্ত কাগজ বা অমসৃণ কাপড় কাচের তৈরি ফোনের পর্দার ক্ষতি করতে পারে।
২. ক্ষারমুক্ত সাবান
ফোনের পর্দায় বা প্রটেক্টরে ওলেওফোবিক আবরণ ব্যবহার করা হয়। এই আবরণ খুবই স্পর্শকাতর। এতে কোনোভাবেই ক্ষারযুক্ত ও ভারী রাসায়নিকযুক্ত সাবান বা দ্রবণ ব্যবহার করা যাবে না। অ্যাপল তাদের আইফোন ব্যবহারকারীদের এ ব্যাপারে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে।
৩. জল
সাবানের সঙ্গে মেলানোর জন্য জলের প্রয়োজন।
৪. টুথপিক বা কটনবাড
সিমকার্ড রাখার খাপ বা হোল্ডার পরিষ্কারের জন্য।
যেভাবে পরিষ্কার করবেন
১. সবার আগে জানতে হবে আপনার ফোনটি কতটা জলনিরোধক। সেটা বুঝে ঠিক করুন ফোন পরিষ্কারের জন্য কতটা জল ব্যবহার করা নিরাপদ হবে। সবচেয়ে ভালো, সরাসরি জল ব্যবহার না করে সতর্ক থাকার জন্য ভেজা তোয়ালে ব্যবহার করা।
২. ফোনের সঙ্গে কোনও কেবল লাগানো থাকলে খুলে ফেলুন। ফোন বন্ধ করুন। খেয়াল রাখবেন, ফোনের ও আপনার, কারও ক্ষতিই যেন না হয়।
৩. হালকা ক্ষারমুক্ত সাবানের সঙ্গে জল মেলান। নিজের বিবেচনায় সাবান-জলের অনুপাত ঠিক করুন।
৪. এক টুকরো নরম মসৃণ কাপড় সাবান-জলের মিশ্রণে ভিজিয়ে নিন। এরপর কাপড় থেকে অতিরিক্ত জল ভালোভাবে ঝরিয়ে নিন।
৫. জল ঝরানো ভেজা কাপড় দিয়ে ফোনের ওপর, নীচ ও পাশের অংশ মুছুন। ফোনকে সরাসরি সাবান-জলের মিশ্রণে ডোবাবেন না, আপনার ফোন যতই জলনিরোধক হোক না কেন।
৬. এবার এক টুকরা শুকনো নরম মসৃণ কাপড় দিয়ে ফোন মুখে নিন।
৭. সিমকার্ড হোল্ডার থেকে সিম খুলে নিন। সেটিকেও চাইলে পরিষ্কার করতে পারেন। তবে এটা বাধ্যতামূলক নয়।
৮. সাবান-জলের মিশ্রণে কটনবাড ডুবিয়ে নিন। আঙুল দিয়ে চেপে অতিরিক্ত জল ঝরিয়ে নিন।
৯. সিমকার্ড ঢোকানোর ট্রে ও স্থানটি ভেজা কটনবাড দিয়ে সাবধানে পরিষ্কার করুন। প্রয়োজনে টুথপিক দিয়ে সিমকার্ড ঢোকানোর জায়গার ময়লা বের করতে পারেন।
১০. শুকনো কাপড় দিয়ে সিমকার্ড ঢোকানোর ট্রে মুছুন। তারপর সব আবার জায়গামতো সেট করে ফোন চালু করুন।