অ্যাভিয়েশন সেক্টর অর্থাৎ বিমানবন্দরে বিভিন্ন কাজে চাকরি দেওয়ার নাম করে চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতানোর অভিযোগ উঠল এক সংস্থার বিরুদ্ধে। ডানলপ, সোদপুর, চিনারপার্কের মতো জায়গায় অফিস খুলে চলছে চাকরি দেওয়ার রমরমা কারবার। মূলত গ্রাম ও মফস্বলের বেকার যুবক-যুবতীরাই শিকার হয়েছেন এই সংস্থার হাতে। অভিযোগের তীর ‘স্কাইলাগুন অ্যাভিয়েশন সার্ভিসেস প্রাইভেট লিমিটেড’ নামে এক সংস্থার বিরুদ্ধে। যদিও আরও কয়েকটি শাখা সংস্থা খুলে এই প্রতারণা কারবার চালাচ্ছে তাঁরা বলে অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যেই ওই সংস্থার বিরুদ্ধে সল্টলেক ইলেকট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন প্রতারিত চাকরিপ্রার্থীরা।

এক প্রতারিতর কথায়, ৭০ হাজার টাকা সিকিউরিটি মানি জমা নিয়ে বিমানবন্দরে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় ওই সংস্থা। এর সঙ্গে সার্ভিস চার্জ হিসেবে আরও ৩০০০ টাকা নিয়েছিল তাঁরা। কথা ছিল চাকরি না পেলে সিকিউরিটি মানি ফেরত দেবেন তাঁরা। তিন থেকে চার দিনের একটি কোর্স করিয়ে তাঁদের চাকরি পাইয়ে দেবেন। কিন্তু ৪ মাস পেরিয়ে গেলেও কোনও চাকরি দেয়নি বলেও দাবি প্রতারিতদের। টাকাও ফেরত পাননি কেউ। কয়েকজন চাকরিপ্রার্থী এমনটাও দাবি করেছেন, সংস্থার তরফে জানানো হয়েছিল, ৬ মাস ঠিকঠাক কাজ করার পর সিকিউরিটি মানি ৭০ হাজার টাকার ৮০ শতাংশ ফেরত পেয়ে যাবেন। তাঁদের আরও অভিযোগ, এরপর ওই সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে অনেকেই চাকরি ছেড়ে দিয়েছি বলে এড়িয়ে যান। কেউ কেউ হুমকির শিকার হন বলেও অভিযোগ চাকরিপ্রার্থীদের। ফলে প্রতারিতরা পুলিশের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হয়েছেন।

পুলিশে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরই নড়েচড়ে বসেন স্কাইলাগুন। সংস্থার ডিরেক্টর শুভ্রজ্যোতি চট্টোপাধ্যায় অবশ্য টাকা ফেরত না দেওয়ার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি এও জানিয়েছেন, ধীরে ধীরে সকলেরই টাকা ফেরত দেওয়া হবে। তবে তিনি এও জানান, চাকরিপ্রার্থীরা পুলিশে না অভিযোগ জানিয়ে কোম্পানির ম্যানেজমেন্টের কাছে আসতে পারতেন। অপরদিকে প্রতারিতদের দাবি, ম্যানেজমেন্টের কাউকেই তাঁরা চিনতেন না, ফলে কার কাছে অভিযোগ নিয়ে যাব? প্রতিদিন হাজার হাজার বেকার যুবক-যুবতী মিথ্যে প্রতিশ্রুতির ফাঁদে পা দিয়ে এই সমস্ত সংস্থার কাছে টাকা দিয়ে সর্বশান্ত হচ্ছেন। এক্ষেত্রে ওই সংস্থা টাকা ফেরতের কথা জানালেও প্রতারিত চাকরীপ্রার্থীরা যতক্ষণ না পর্যন্ত হাতে টাকা পাচ্ছেন ততক্ষণ আস্বস্ত হতে পারছেন না।