আমেরিকায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৮০০ ছাড়াল। এখন আমেরিকায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৬৬,০০০। সারা বিশ্বে করোনায় সংক্রমিত ১৩ লাখেরও বেশি। মারা গিয়েছেন ৭৪ হাজার। নিউইয়র্কে মারা গিয়েছেন ৪,৭৫৮ জন। সংক্রমিত ১ লাথ ৩০ হাজার। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, যেভাবে আক্রমণাত্মকভাবে করোনার মোকাবিলা করা হচ্ছে, তাতে হাসপাতালগুলির ওপর চাপ কমবে। তিনি আগেই সতর্ক করে বলেছিলেন, চলতি সপ্তাহ আমেরিকার পক্ষে অত্যন্ত ভয়ঙ্কর হবে। তবে অন্ধকারের শেষের আলো তিনি দেখতে পাচ্ছেন। আমেরিকায় করোনায় মৃতদের মধ্যে শিকাগোর কৃষ্ণাঙ্গরা ৭০ ভাগেরও বেশি। শিকাগোর কৃষ্ণাঙ্গ জনসংখ্যা ৩০ ভাগ। ডেট্রয়েট, মিলওয়াকি, নিউ অর্লিয়ন্স, নিউ ইয়কের মতো শহরেও আক্রান্তদের বেশিরভাগই তারা। ৫ এপ্রিল শিকাগোয় ৪৬৮০ আক্রান্তের মধ্যে কৃষ্ণাঙ্গ ছিল ১,৮৪২ জন। শ্বেতাঙ্গ ৮৭৪, হিস্পানিক ৪৭৮, এশিয়ান বংশোদ্ভূত ১২৬ জন। রবিবার পর্যন্ত শিকাগোয় মৃত ৯৮, যার ৯৮ ভাগই কৃষ্ণাঙ্গ। সোমবার ফ্রান্সে করোনায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৮৩৩ জনের। এরমধ্যে ২২৮ জন মারা গিয়েছেন বৃদ্ধাশ্রমে। মোট মৃত ৮,৯১১ জন। রবিবার ফ্রান্সে মৃতের সংখ্যা ছিল সবথেকে কম। ইতালিতে অবশ্য পরপর তিনদিন মৃতের সংখ্যা কমছে। ইনটেন্সিভ কেয়ার থাকা রোগীর সংখ্যাও কমছে। সোমবার ৩৫৯৯টি সংক্রমণের খবর মিলেছে ইতালিতে। গত ২৪ ঘণ্টায় তা প্রায় ৭০০ কম। এখন ইতালিতে আক্রান্ত ১,৩২,৫৪৭। মোট মৃত ১৬,৫২৩। স্পেনেও এদিন পরপর চারদিন আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। ২৪ ঘণ্টা.য় স্পেনে মারা গিয়েছেন ৬৩৭ জন। এই সংখ্যা গত ১৪ দিনে সবথেকে কম। মোট মৃতের সংখ্যা এখন ১৩,০৫৫। বাড়ছে সুস্থ হওয়া রোগীদের সংখ্যা।