বামদুর্গ বলেই পরিচিত যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। বিগত ছাত্র সংসদ নির্বাচনগুলিতে বাম ছাত্রসংগঠনগুলির রমরমা দেখে এসেছে রাজ্য। কিন্তু এবার এই বামঘাঁটিতেই হানা দিতে চলেছে পদ্মশিবির। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে এই প্রথমবার প্রার্থী দিতে চলেছে আরএসএসের ছাত্র সংগঠন অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ বা এবিভিপি। কলা বিভাগের ৪০টি আসনে ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সবকটি আসনেই এবার প্রার্থী দিচ্ছে পদ্মশিবির। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি যাদবপুরে ছাত্র সংসদ নির্বাচন। এবিভিপি এবার প্রার্থী দেওয়ায় কড়া টক্করের সম্মুখীন হতে চলেছে বাম শিবির। কারণ বেশ কয়েকমাস ধরেই যাদবপুরে বামঘাঁটিতে পদ্মের আবির্ভাব লক্ষ করা যাচ্ছিল। সম্প্রতি এই বিশ্ববিদ্যালয়েই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো নিয়ে দিনভর টানাপোড়েন তৈরি হয়েছিল। পরে রাজ্যপাল সেখানে পৌঁছে বাবুলকে উদ্ধার করে বের করে আনেন। উল্লেখ্য, বাবুল সুপ্রিয় যাদবপুরে এবিভিপি-র এক অনুষ্ঠানেই প্রধান অতিথি হয়ে গিয়েছিলেন।

ফাইল চিত্র: যাদবপুরে ঘেরাও বাবুল সুপ্রিয়

এবার সরাসরি ছাত্র সংসদের নির্বাচনে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েই বড় চমক দিল আরএসএস-র ছাত্র সংগঠন। সূত্রের খবর, কলা বিভাগের কেন্দ্রীয় প্যানেলে সিআর পদে শুভদীপ কর্মকার (ফিল্ম স্টাডিজ-পিজি) ও জিএস পদে সম্প্রতি মোদক (ইন্টারন্যাশনাল রিলেশন-ইউজি) মনোনয়ন পেশ করবেন। পাশাপাশি ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে সিআর পদে নিখিল দাস (ইন্টারন্যশনাল রিলেশন-ইউজি) এবং জিএস পদে পবন কুমার (ওয়াটার রিসোর্স ইঞ্জিনিয়ারিং-পিজি) মনোনয়ন দিতে চলেছেন। এছাড়াও দুটি বিভাগেই এজিএস ডে ও ইভিনিং সব পদেই প্রার্থী দিতে চলেছে এবিভিপি। যদিও এবিভিপি-র এবারের নির্বাচনে লড়া নিয়ে খুব একটা গুরিত্ব দিতে নারাজ বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই। তাঁদের কথায়, যাদবপুর বামেদের শক্ত ঘাঁটি ছিল, থাকবে। কিন্তু তবুও একটা কাঁটা রয়ে যাচ্ছে বলেই মনে করছে একটি অংশ। কারণ সম্প্রতি বাম ছাত্র সংগঠনে সম্প্রতি ৩১ জন গণইস্তফা দিয়েছিলেন।