রাতের অন্ধকারেই পাচার করা হচ্ছিল রেশনের চাল-গম। ওই সময় হাতেনাতে ধরে ফেলেন এলাকাবাসী। বাধা দিতে গেলে কয়েকজন অসাধু ব্যবসায়ীর হাতে প্রহত হতে হল কয়েকজনকে। এই ঘটনায় রবিবার রাতে ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়াল নদিয়ার বাদকুল্লায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাদকুল্লা মোড়ের জালালখালি এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের কাছে এক রেশন ডিলার চাল-গম পাচার করছিলেন। স্থানীয় কয়েকটি মুদিখানা দোকানে রেশনের সামগ্রী পাঠানো হচ্ছিল রাতের অন্ধকারেই। দিলীপ ঘোষ নামে এক মুদি ব্যবসায়ীর দোকানে ওই সামগ্রী ঢোকানোর সময় এলাকাবাসীরা হাতেনাতে ধরেন আনন্দকুমার পাল নামে ওই রেশন ডিলারকে। সেই সময় মাত্র কয়েকজন গ্রামবাসী ছিলেন। অভিযোগ, সেই সুযোগে ব্যবসায়ীরা মারধোর করে গ্রামবাসীদের। পরে খবর পেয়ে সেখানে জড়ো হয় কয়েকশো মানুষ। শুরু হয় দুপক্ষের হাতাহাতি, সেই সুযোগে কয়েকজন ব্যবসায়ী পালিয়ে গেলেও ধরা পড়ে যায় ওই রেশন ডিলার। পরে ঘটনাস্থলে কোতোয়ালি থানার বিশাল পুলিশবাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। আনন্দ কুমার পাল নামে ওই রেশন ডিলারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, সরকারের তরফে রেশনে চাল-গম দেওয়ার নির্দিষ্ট মাত্রা বলে দিলেও ওই রেশন দোকানে কম সামগ্রী দেওয়া হচ্ছিল। ফলে প্রথম থেকেই সন্দেহ ছিল ওই ডিলারের ওপর। এবার তাঁকে হাতেনাতে ধরা হয়েছে। তবে অসাধু ব্যবসায়ী ও তাঁদের লোকজন মহিলা ও বৃদ্ধদের মারধোর করেছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

ছবি: আটক রেশন ডিলার