মালিককে না জানিয়েই জমি দখলের অভিযোগ উঠল ইসিএলের বিরুদ্ধে। কেন্দা এরিয়ার বহুলা খোলামুখ খনি এলাকায় ২৪ একর জমি দখলের অভিযোগ কেন্দা এরিয়ার ইসিএল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। অভিযোগকারী রণবীর সিং জানান, ২০০৬-তে ওই এলাকায় খোলামুখ খনির জন্য জমি অধিগ্রহণ করেছিল ইসিএল। সে সময় জমির মালিকেরা খোলামুখ খনির কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু এখন তাঁদেরকে ইসিএলের তরফে জানানো হয়, জমিতে খনির কাজ হচ্ছে এবং সেই জমির বিনিময়ে পরিবার পিছু দুজনকে চাকরিও দেওয়া হয়েছে। কেউ বা কারা অন্যায় ভাবে জমির মালিকদের প্রতারিত করে তাঁদের জমি বিক্রি করে দিয়েছেন কিনা সে নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। বুধবার সকাল থেকেই খনি এলাকায় সমস্ত গাড়ি আটকে বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন জমির মালিকেরা। অভিযোগ, এই বিষয়ে বিভিন্ন দফতরে জানানো হলেও কোনও সুরাহা না মেলায় আন্দোলনের পথে নেমেছেন তাঁরা। সংশ্লিষ্ট খনির ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সত্যকাম আনন্দ জানান, বিষয়টি তিনি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন এবং শীঘ্রই এই বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসা হবে।