রাজ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ জন। ফলে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪৯। শনিবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে এই তথ্য জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘন্টায় একজনেরও মৃত্যু হয়নি। করোনা মোকাবিলায় যে রাজ্য সরকার একেবারেই ঢিলেমি দিচ্ছে না, সেটাও এদিন পরিসংখ্যান দিয়ে বুঝিয়েছেন মুখ্যসচিব। তাঁর দাবি, করোনা মোকাবিলায় এই রাজ্যে সাতটি পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হয়েছে, এরমধ্যে পাঁচটি সরকারি ও দুটি বেসরকারি। পাশাপাশি কলকাতা সহ গোটা রাজ্যে মোট ৫৯টি করোনা হাসপাতাল তৈরি রাখা হয়েছে। এরমধ্যে শুধু কলকাতাতেই ৪টি হাসপাতালকে করোনা রোগীদের জন্য সাজিয়ে তোলা হয়েছে। কোয়ারেন্টাইন সেন্টার চালু হয়েছে ৫১৬টি। সরকারিভাবে ওই সমস্ত সেন্টারে রয়েছেন ২৬২৬ জন। গৃহ পর্যবেক্ষণ বা হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন প্রায় ৫২ হাজার মানুষ। তবে সুখবর হল বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল থেকে করোনা মুক্ত হয়ে ছাড়া পেতে চলেছেন ৪ জন রোগী। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য প্রায় ১ লক্ষ ৮০ হাজার পিপিই বিলি করা হয়েছে।