বরাবরই ঠোঁটকাটা হিসেবে পরিচিত যুবরাজ সিং। ২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের নায়কের জীবনে অনেক উথাল-পাতাল হয়েছে। কিন্তু সোজা কথা সরাসরি বলতে তাঁর জুড়ি মেলা ভার। মাস কয়েক আগেই তিনি ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। এরপর অভিনয় জগতে প্রবেশ তাঁর। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক তথা বর্তমান বোর্ড প্রেসিডন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অধিনায়কত্বেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবির্ভাব যুবরাজ সিংয়ের। এরপর ক্রমেই তারকায় পরিণত হওয়া। নিজের ক্রিকেট জীবনে সৌরভ বা দাদার অবদান কখনই অস্বীকার করেননি যুবি। এবারও করলেন না। সৌরভ না ধোনি, নেতা হিসাবে সেরা কে? এই প্রশ্নের উত্তরেও স্ট্রেট ব্যাটে খেললেন বাঁ হাতি এই মারকুটে ব্যাটসম্যান।

অধিনায়ক হিসেবে সৌরভই যে সেরা বলতে ভুললেন না যুবরাজ। দাদার থেকে যে সম্মান-সমর্থন পেয়েছেন, ধোনি বা কোহলির থেকে তা কখনও পাননি। পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন যুবি। যদিও তিনি বলেছেন, সৌরভ ও ধোনির মধ্যে কে সেরা সেটা বাছা কঠিন। সৌরভের সঙ্গে অনেক সুখের স্মৃতি রয়েছে, তবে সেটা হয়তো আমার প্রতি দাদার সমর্থনের জন্যই। ও বরাবরই আমাকে সমর্থন করে এসেছে। তবে সেই সমর্থন যে ধোনি বা কোহলির থেকে কোনও দিনই পাননি সেটাও সোজা ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন যুবরাজ সিং। উল্লেখ্য, যুবির বাবা প্রাক্তন ক্রিকেটার যোগিন্দর আগেও অভিযোগ করেছিলেন ধোনির জন্যই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে আসতে হয়েছে যুবিকে। পরে কোহলির আমলেও সেভাবে সুযোগ পাননি যুবরাজ। এবার স্বয়ং যুবরাজও সেই সুরেই জানিয়ে দিলেন সৌরভই সেরা অধিনায়ক।